নতুন বছরের প্রথম সকালে মেজাজটা এত খারাপ হবে কল্পনাও করিনি। প্রথম আলো পেপারটা হাতে নিয়ে আমি একি দেখলাম। মুক্তিযুদ্ধের চেতনাধারী দল বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ বুকে টেনে নিল জামাতকে। কুষ্টিয়া জেলা জামায়াতে ইসলামীর রুকন নওশের আলী আনুষ্ঠানিকভাবে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়েছেন।
তাহলে কি আওয়ামীলীগ যুদ্ধ অপরাধীদের বিরুদ্ধে এত কথা বলেন শুধু ক্ষমতায় ঠিকে থাকার জন্য। দেশপ্রেম বলতে কি কিছুই নেই তাদের মাঝে??? তাহলে কি – EACH & EVERYTHING IS FAIR IN LOVE, WAR & POLITICS.
***মুক্তিযুদ্ধের চেতনাধারী দল বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কী জামাতকে নিষিদ্ধ করেছে কি, আবার বহুদলীয় গনতন্ত্রকে হত্যা করে এক দলীয় শাসন ব্যবস্থা চালু করার জন্য??????
*** আমরা পাকিস্থানী পন্য বর্জন করছি, তারা যুদ্ধ অপরাধীদের পক্ষে কথা বলার জন্য। আমাদের এখন কি করা উচিৎ???
*** খালেদা জিয়া এত অপবাদ মাথায় নিয়ে, এই ভয়ে হয়ত জামাতকে ত্যাগ করেননি (জামাতকে আওয়ামীলীগ ক্ষমতার জন্য তাদের ঘরে তুলবে)।
**** আমাদের গনজাগরন মঞ্চের ভূমিকা এইবার কি হবে???? ডাঃ ইমরান আপনি কোথায়?? এই ব্যাপারে আপনার প্রতিক্রিয়া জানান যত দ্রুত সম্ভব।
আমরা কি স্বপ্ন দেখব নতুন বছরে?? এই প্রশ্ন——
১। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে।
২।মাহবুব উল আলম হানিফের কাছে।
৩। সকল ব্লগারের কাছে।