ছাত্রলীগ নেতা বদরুল আলমের চাপাতির কোপে সিলেটের সরকারি মহিলা কলেজের ছাত্রী খাদিজা আক্তার নার্গিস মারাত্মকভাবে আহত হয়ে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে থাকায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জামায়াতে ইসলামী।
দলটির ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান আজ বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে বলেন, এ ঘটনা গোটা জাতির জন্য লজ্জাজনক। এ নিকৃষ্ট হামলার ঘটনা সারাদেশে ছাত্রলীগের সন্ত্রাসী তাণ্ডবেরই একটি খণ্ডিতাংশ মাত্র। চাঁদাবাজি, টেন্ডারবাজি, সিট বাণিজ্য, ভর্তি বাণিজ্য, হত্যা, গুম, সন্ত্রাস, নারী হত্যা, নারী ধর্ষণ, ছিনতাই, চুরি, ডাকাতি, মাদকদ্রব্য সেবনসহ হেন কোন অপরাধ নেই যা ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা করে না।
২০১৬ সালের ১৩ জুন পটুয়াখালী জেলার বাউফলে যুবলীগের নেতা-কর্মীরা এক হিন্দু মহিলা ও তার মেয়েকে নদীর মধ্যে নৌকায় ধর্ষণ করে। গত ২৫ সেপ্টেম্বর টাংগাইল জেলার মির্জাপুরে ছাত্রলীগ নেতা খোকনের ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৩য় শ্রেণীর এক ছাত্রী। ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতা-কর্মীদের এ রকম নারী ধর্ষণের বহু উদাহরণ আছে।
ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা ২০১২ সালের জুলাই মাসে সিলেটের এমসি কলেজের ছাত্রাবাস পুড়িয়ে দিয়েছিল, তা দেখে শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ কেঁদে ছিলেন। তারও আগে ছাত্রলীগের সন্ত্রাসী বাহিনী একই কায়দায় সিলেট সরকারি কলেজের একমাত্র ছাত্রাবাসটি পুঁড়িয়ে দেয়। শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের হামলায় ছাত্রলীগ কর্মী সুমন চন্দ্র দাস নিহত হয়। ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা অত্যন্ত নৃশংস কায়দায় দিবালোকে শত শত মানুষ ও মিডিয়ার সামনে পুরান ঢাকার দর্জি বিশ্বজিৎকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে এবং রড দিয়ে পিটিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করে। ২০১৪ সালে হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জে ছাত্রলীগের হামলায় হেভেন চৌধুরী নিহত হয়। ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীদের হাতে নিহত হয় রাজশাহীর রোজানুল ইসলাম চৌধুরী, এমসি কলেজের ছাত্র উদয়েন্দ্র সিংহ পলাশ, পাবনায় মোস্তফা কামাল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এফ রহমান হলের মেধাবী সাধারণ ছাত্র আবুবকরসহ অনেকেই। ২০০৯ সালে ১৩ মার্চ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামী ছাত্রশিবিরের সেক্রেটারি শরীফুজ্জামান নোমানীকে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা নৃশংসভাবে হত্যা করে। ২০০৯ সাল থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত ছাত্রলীগের পাঁচশতাধিক অভ্যন্তরীণ সংঘর্ষে ছাত্রলীগের প্রায় অর্ধশতাধিক নেতা-কর্মী ও সাধারণ ছাত্র নিহত হয়েছে।

তিনি বলেন, ছাত্রলীগ অবাধে নানা ধরনের ধ্বংসাত্মক অপকর্ম করেই চলেছে। অবিলম্বে লাগাম টেনে ধরে দেশ ও দেশের মানুষকে ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীদের হাত থেকে রক্ষা করুন।
তিনি সিলেটে ছাত্রলীগ নেতা বদরুল আলমকে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান এবং মহান আল্লাহ পাকের দরবারে খাদিজা আক্তার নার্গিসের সুস্থ্যতা কামনা করেন।