সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) রাত দুইটার দিকে রাজধানীর লালমাটিয়ার জাকির হোসেন রোডের বাসা থেকে ইসলামিক বক্তা মুফতি কাজী ইব্রাহীমকে আটক করে ডিবির একটি দল। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার।

তিনি বলেন, কাজী ইব্রাহিমকে আটক করে ডিবি কার্যালয়ে হেফাজতে নেওয়া হয়েছে, জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

কী কারণে তাকে আটক করা হলো এমন প্রশ্নের জবাবে হাফিজ আক্তার বলেন, জিজ্ঞাসাবাদ শেষে এ বিষয়ে আপনাদের জানানো হবে।

ডিবি সূত্রে জানা গেছে, মুফতি ইব্রাহীম ফেসবুক, ইউটিউবসহ তার ওয়াজে উল্টাপাল্টা কথা বলে আসছেন দীর্ঘদিন ধরে যা নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা, বিতর্ক হচ্ছে। সেসব বিষয় যাচাই-বাছাই করতে তাকে ডিবি হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

এর আগে, সোমবার রাতে তার বাসায় ডিবি পুলিশের উপস্থিতির খবরে ফেসবুক লাইভে এসে ‘র’ এর এজেন্ট, গুণ্ডা ডিবি পুলিশ তার বাসা ঘেরাও করেছে বলে অভিযোগ তুলে ২০ মিনিটের বেশি সময় লাইভে কথা বলেন মুফতি ইব্রাহীম।

এক প্রশ্নের জবাবে ড. আব্বাসী বলেন, মুফতি কাজী ইব্রাহিম সোশ্যাল মিডিয়ায় একজন জনপ্রিয় ইসলামিক স্কলার ও বক্তা। তিনি একজন বয়োবৃদ্ধ আলেম। কোনো মামলা ছাড়া তাকে আটক করায় আমরা উদ্বিগ্ন।
তিনি বলেন, তার (কাজী ইব্রাহিম) যদি কোনো অপরাধ থেকে থাকে তাহলে বিচার হতে পারে। কিন্তু একজন বয়োবৃদ্ধ আলেম হিসেবে আমরা তার মুক্তি দাবি করছি। তার মুক্তি পাওয়ার অধিকার রয়েছে। একইভাবে মাওলানা মামুনুল হকসহ যেসব আলেমকে গ্রেফতার করা হয়েছে তাদের মুক্তির দাবি জানাচ্ছি।